নারী উদ্যোক্তা খুঁজছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক

নারী উদ্যোক্তা খুঁজছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক

[ নারীদের উন্নয়ন ছাড়া কোন দেশই এগোতে পারবে না । আমাদের বাঙ্গালী নারী এখন দেশে বিদেশে রাজনীতি, অর্থনীতি, শিল্প সাহিত্য সহ নানা ক্ষেত্রে ব্যাপক অবদান রেখে চলেছে। তাই দেশের ভেতরে ও নারীদের সৃজনশীল উদ্যোগকে সহযোগীতা করা একটি মহান কাজ। আমরা এই ধরনের উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। নানা কারনে ঐতিহাসিক ভাবে নারীরা নির্মমতার শিকার হয়েছেন। তাদেরকে উজ্জ্বল আগামী উপহার দিতে হলে শিক্ষা ও অর্থনৈতিক স্বনির্ভরতা দিতেই হবে। ]

ব্যবসা বা শিল্প প্রতিষ্ঠায় আগ্রহী নারীদের খুঁজে বের করতে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই অ্যান্ড স্পেশাল প্রোগ্রামস বিভাগ থেকে এক প্রজ্ঞাপণ জারি করে এই নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এই প্রকল্প সফলভাবে বাস্তবায়নকে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর ক্যামেলস রেটিংয়ের সঙ্গেও সম্পৃক্ত করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

দেশের ব্যাংক ও ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রত্যেকটি শাখাকে তাদের আওতাধীন এলাকায় কমপক্ষে তিনজন উদ্যোগী নারী কিংবা নারী উদ্যোক্তাকে খুঁজে বের করতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এই নারীদের এমন হতে হবে, যারা ইতোপূর্বে কোন ব্যাংক বা ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে কোন ধরনের ঋণ নেননি।

নির্বাচিত নারী উদ্যোক্তাদের তাদের পছন্দ অনুযায়ী শিল্প, সেবা বা ব্যবসা কার্যক্রম নির্বাচন, মূলধন সংগ্রহ ও ব্যবস্থাপনা, ব্যবসা পরিচালনা, উৎপাদিত পণ্য বা সেবা বাজারজাতকরণ, ব্যাংকে হিসাব খোলা ও লেনদেনের পদ্ধতিসহ সার্বিক বিষয়ে সক্ষমতা বাড়াতে ঋণদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোকেই প্রশিক্ষণ দিতে বলা হয়েছে।

তবে আঞ্চলিক পর্যায়ে কয়েকটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে প্রশিক্ষণের উদ্যোগও নিতে পারবে বলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রজ্ঞাপণে বলা হয়েছে। এতে আরও বলা হয়েছে, প্রয়োজনে বিসিক, এসএমই ফাউন্ডেশন, মহিলা বিষয়ক অধিদফতর, জাতীয় মহিলা সংস্থা, যুব উন্নয়ন অধিদফতর, বিভিন্ন ব্যবসায়ী চেম্বার বা সমিতির সহায়তা নিতে পারবে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো।

প্রতিটি ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নির্বাচিত তিনজন নারী উদ্যোক্তাদের মধ্যে কমপক্ষে একজনকে বছরে কুটির, মাইক্রো অথবা ক্ষুদ্র খাতে ঋণ দিতে হবে। এই ঋণ ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের স্বাভাবিক ঋণ কার্যক্রমের অতিরিক্ত হিসেবে বিবেচনা করা হবে। নারী উদ্যোক্তাদের প্রয়োজনে গ্রুপ ভিত্তিক ঋণও দেয়া যাবে।

এই ঋণের বিপরীতে বাংলাদেশ ব্যাংকের পুনঃঅর্থায়ন তহবিল থেকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পুনঃঅর্থায়ন সুবিধা পাবে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো। নারীর অর্থনৈতিক মুক্তি ও ক্ষমতায়ন এবং প্রাতিষ্ঠানিক অর্থায়ন ব্যবস্থায় অধিকতর অংশগ্রহণ নিশ্চিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এই কর্মসূচির কথা গভর্নর আতিউর রহমান বলে আসছেন।
– See more at: http://www.sangbad.com.bd/business/2015/04/11/3237#sthash.pvjKGoT1.dpuf

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s